দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর নাম এখন “দৌলতদিয়া বাজার পূর্বপারা”

139

কামাল হোসেন,(রাজবাড়ী)প্রতিনিধিঃঅবশেষে গ্রামের নাম সংক্রান্ত বিড়ম্বনা থেকে মুক্তি পেল রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া যৌনপল্লীর বাসিন্দারা।

এখানে বসবাসরত এক হাজার তিনশত আট জন যৌনকর্মীর জাতীয় পরিচয়পএে গ্রামের নাম উল্লেখ ছিল “পতিতাপল্লী”। এ কারনে তাদের এবং তাদের সন্তানদের বিভিন্ন ক্ষেএে বিভিন্ন বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছিল। রাজবাড়ী জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃ হাবিবুর রহমান বলেন, রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ০০৭২ কোডের ভোটার এলাকার নাম পরিবর্তন বিষয়ক একটি চিঠি আমাদের কাছে আসে। সেখানে দৌলতদিয়া ইউনিয়নের ভোটার কোড ০০৭২ অপরিবর্তিত রেখে পতিতালয় এর স্থলে “দৌলতদিয়া বাজার পূর্বপারা” নাম করণ করা হয়। ১৯৭৭ সালে জন্ম নেয়া এক যৌনকর্মী জানান,আমরা ভাগ্য বিড়ম্বনার শিকার হয়ে এখানে এসেছি। গ্রামের নাম আপত্তিকর হওয়ায় আমাদের সন্তানদের বাইরের কোন স্কুলে ভর্তি নেয়না। তাছাড়াও আরও বিভিন্ন নাগরিক সুবিধার ক্ষেএে সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। নাম পরিবর্তনের বিষয়ে একাধিক যৌনকর্মী সরকারকে ধন্যবাদ জানান। কেকেএস সরকারি শিশু প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বিলকিস বেগম জানান, এক সময় এখানকার কোন শিশুকেই কোন বিদ্যালয়ে ভর্তি নিত না। তখন মুক্তিযোদ্ধা ফকির আব্দুল জব্বার এই বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করে যৌনপল্লীর শিশুদের পড়ালেখার সুযোগ করে দেন। এই বিদ্যালয়ে যৌনপল্লীর ১৪৩ জন ছেলে মেয়ে পড়ালেখা করে। তিনি আরও বলেন,নাম পরিবর্তনের ফলে এখানকার শিশুরা এখন জেলাসহ বিভিন্ন স্থানে পড়ালেখার সুযোগ পাবে ‘ থাকবে না কোন ভর্তি বিড়ম্বনা। গোয়ালন্দ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রুবায়েত হাসান শিপলু জানান, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান গ্রামের নামের বিষয়টি আমাদের জানালে আমরা তা গুরুত্বের সংগে নিয়ে নির্বাচন কমিশনে পাঠাই। সেটা পরিবর্তন হয়েছে।