দৌলতদিয়ায় আবাসিক বোডিং থেকে আবারও মৃতদেহ উদ্ধার

124

কামাল হোসেন, রাজবাড়ী প্রতিনিধিঃ

রাজবাড়ী গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ঘাট রেলস্টেশন সংলগ্ন আবাসিক বোডিং থেকে আবারও এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশ।

২৬/০৮/২০১৯ ইং তারিখ সোমবার সকালে গাউছিয়া নিজাম বোডিং থেকে সুমন প্রামানিক (৩৩) নামের ঐ যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়। সুমন প্রামানিক নওগাঁ জেলার রানী নগর উপজেলার পারাইল ইউনিয়নের বুদনা গ্রামের মৃত সোনাই প্রামানিকের ছেলে। আবাসিক বোডিংয়ের রেজিস্ট্রারে লেখা মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করে তার এ পরিচয় পাওয়া গেছে।

বোডিংয়ের মালিক নিজাম শেখ জানান, ওই ব্যক্তি গত ২৫/০৮/২০১৯ ইং তারিখ রোববার দুপুর ১২:৩০ ঘটিকায় তার বোডিংয়ে রুম বুকিং নেয়। এরপর রাত শেষে ২৬/০৮/২০১৯ ইং তারিখ সোমবার সকালে তার কোন সারা-শব্দ না পেয়ে তাকে ডাকাডাকির এক পর্যায়ে বুঝতে পারি তিনি মারা গেছেন। এরপর গোয়ালন্দ ঘাট থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসে সকাল ১০:০০ ঘটিকায়  মৃত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে গোয়ালন্দ ঘাট থানার এসআই ওলিয়ার রহমান জানান, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল গাউছিয়া বোডিংয়ে গিয়ে সুমনের লাশ উদ্ধার করি। মৃত্যুর সঠিক কারন জানতে লাশটি ময়না তদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সুমনের মা রেহেনা বেগম মুঠোফোনে জানান, তার ছেলে কয়েক বছর ধরে বাড়ীতে থাকে না। কয়েক বছর আগে বিবাহ করার পর স্ত্রীর সাথে ছাড়া-ছাড়ি হয়ে গেছে। শুনেছিলাম ও বিভিন্ন জায়গায় থেকে শ্রমিকের কাজ করতো।

গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রবিউল ইসলাম জানান, সম্প্রতি দৌলতদিয়ায় আবাসিক বোডিং থেকে উদ্ধার হওয়া মৃত ব্যাক্তিদের পাশের যৌনপল্লীতে যাতায়াত ছিল। প্রাথমিক ভাবে মনে হচ্ছে অতি উচ্চ মাত্রায় যৌন উত্তেজন ওষুধ সেবনের ফলে এদের মৃত্যু হয়েছে। পরপর যে দু’টি মৃতদেহ উদ্ধার করা হলো তাদের শরীরে কোন প্রকার আঘাতের চি‎হ্ন বা ক্ষত নেই। তারপরও ময়না তদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।