দিনমজুর গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা

56
রামগঞ্জ(লক্ষ্মীপুর)প্রতিনিধি:

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে পরকীয়ার মিথ্যা অভিযোগে স্থানীয় ইউনিয়ন যুবলীগ আহবায়ক ও প্রভাবশালী কতৃক জরিমানা করার অপমান সহ্য করতে না পেরে মোঃ খোকন (২৪) নামের এক দিনমজুর গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে।
ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে রামগঞ্জ উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের ব্রহ্মপাড়া গ্রামের কামিলাবাড়ীতে। মোঃ খোকন একই বাড়ীর ফজল হকের ছেলে।
স্থানীয় সূত্রে ও নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক বাড়ীর লোকজন জানান, বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় ব্রহ্মপাড়া গ্রামের কামিলাবাড়ীর জনৈক মহিলার সাথে দিনমজুর মোঃ খোকনের পরকীয়ার অভিযোগ তুলে একই বাড়ীর মোঃ সোহাগ ইউনিয়ন যুবলীগ আহবায়ক আবদুর রব সহ অন্যদের সংবাদ দেয়।
সংবাদ পেয়ে বৃহস্পতিবার গভীর রাত পর্যন্ত যুবলীগ নেতা আবদুর রব ও মোরশেদসহ কয়েকজন ঐ বাড়ীতে গিয়ে পরকীয়ার বিষয়টি সমাধানে শালিস বৈঠক করেন। শালিসে আবদুর রব দিনমজুর মোঃ খোকনকে অভিযুক্ত করে ১৫হাজার টাকা জরিমানা করেন এবং আজ শুক্রবার সকাল ১০টার মধ্যে টাকা পরিশোধ করার শর্তে ছেড়ে দেয়। শালিসে দিনমজুর মোঃ খোকা পরকীয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে কান্নাকাটি করলেও শালিসদারগণ তাদের সিদ্ধান্তে অটল থাকেন।
মোঃ খোকনের বাবা ফজল হক জানান, পরকীয়ার অপবাদ সহ্য করতে না পেরে আমার ছেলে অনেক কান্নাকাটি করেছে। শালিসদের হাতে পায়ে ধরলেও তারা আমাদের কোন কথা শুনেনি।
শালিস বৈঠক শেষ হওয়ার পর রাতের কোন একসময় কামিলা বাড়ী বাগানের একটি আম গাছে গলায় গামছা দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।
ইউনিয়ন যুবলীগ আহবায়ক আবদুর রব জানান, আমি বিষয়টি জানি না। আমার রাজনৈতিক ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতে একটি মহল এমন মিথ্যা কথা রটাচ্ছে। আমি শালিশের পরে গিয়েছি ঘটনাস্থলে।
রামগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, আমরা বিষয়টি জানতে পেরেছি। ঘটনাস্থলে রামগঞ্জ থানার এস আই কাওসারুজ্জামানকে পাঠানো হয়েছে। শালিস বৈঠকে পরকীয়ার অভিযোগে কোন জরিমানা করা হলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা হসপিটাল মর্গে প্রেরনের প্রক্রিয়া চলছে।