লালপুরে ৩ বছর প্রবাসী ইউপি সদস্যকে ‘নিরুদ্দেশ’ বললেন ইউপি চেয়ারম্যান !

61

নাটোর প্রতিনিধি:

বিধিবর্হিভূতভাবে তিন বছর যাবৎ সরকারী ভাতা উত্তোলন করলেও সেই ওয়ার্ড সদস্যের পক্ষেই সাফাই গাইলেন নাটোরের বড়াইগ্রাম সংলগ্ন লালপুর কদিমচিলান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সেলিম রেজা মাস্টার। মঙ্গলবার সকালে ইউনিয়ন পরিষদে এক সংবাদ সম্মেলন করে স্থানীয় সাংবাদিকদের তিনি জানান, ১ নং ওয়ার্ড সদস্য আবুল কালাম ২০১৬ সালে নির্বাচনের পর থেকেই সুখে দুঃখে এলাকার মানুষের পাশে থেকেছেন এবং চলতি বছরের ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। এরপর থেকেই আবুল কালাম ‘নিরুদ্দেশ’ হয়ে যায়। অনেক চেষ্টা করেও তার খোঁজ পাওয়া যায়নি। পরে তার স্ত্রীর অনুরোধে মানবিক দিক বিবেচনা করে তার বকেয়া ভাতা স্ত্রী মাসুদা বেগমকে দেওয়া হয়। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে এ বিষয়ে সংবাদ প্রচার হয়, যা সঠিক নয় বলে তিনি দাবি করেন। তবে ওই ইউপি সদস্য নিরুদ্দেশ হওয়ার পর থানায় এ ব্যাপারে কেন কোন ডায়েরী করা হলো না সাংবাদিকরা কারণ জানতে চাইলে তিনি প্রসঙ্গ এড়িয়ে যান। একই সাথে শুক্রবার ও রবিবার কাতার প্রবাসী আবুল কালাম মেম্বার মুঠো ফোনে ইমো (ওগঙ) ০০৯৭৪৬৬৭৫৯২৯৭ নাম্বরে ফোন করে তার স্ত্রী ও কয়েকজন সাংবাদিকের সাথে কথা বলেছেন এবং এই দৃশ্য যমুনা টেলিভিশনে প্রচারিত হয়েছে অথচ বলছেন ‘নিরুদ্দেশ’ সংবাদ সম্মেলনে এমন বিভ্রান্তিমূলক তথ্য দেয়ার মানে কী জানতে চাইলে ওই ইউপি চেয়ারম্যান কিছুক্ষণ চুপ করে থাকেন এবং পরক্ষণে সংবাদ সম্মেলন সমাপ্ত ঘোষণা করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যুতি জানান, গত ২৭ আগষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগে এলাকাবাসী জানায়, বিধিবর্হিভ‚তভাবে কদিমচিলান ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ড সদস্য আবুল কালাম আজাদ প্রায় তিন বছর যাবৎ কাতার অবস্থান করছেন। গণমাধ্যমেও বিষয়টি নিয়ে সংবাদ প্রচার হয়। পরে উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে সহকারী কমিশনার-ভ‚মি (এসিল্যান্ড) সাদিয়া আফরিনকে প্রধান করে এক সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এক সপ্তাহের মধ্য তদন্ত প্রতিবেদন দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তদন্তাধিন একটি বিষয় নিয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের সংবাদ সম্মেলন ও অতি উৎসাহের ব্যাপারটি কাম্য নয়। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারেই দেখা হচ্ছে।