রায়পুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে আলোচনায় আলতাফ হোসেন হাওলাদার

802
আখতার হোসাইন খান
নিজস্ব প্রতিনিধি
মাস্টার আলতাফ হোসেন হাওলাদার বিএসসি সাবেক সফল রায়পুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান। তাঁর জন্ম তারিখ ৩১/১২/১৯৬০ ইং। পিতা- নোয়াব মিয়া হাওলাদার, মাতা – আকরামুন্নেসা। ৩ ভাই ও ২বোনের মধ্যে তিনি তৃতীয়। তিনি চরইন্দুরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করে, রচিমুদ্দীন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি,ঢাকা তিতুমীর কলেজ থেকে এইচএসসি ও বিএসসি ডিগ্রী লাভ করেন। পড়াশুনা শেষে এমপিও ভুক্ত চরবংশী এসএম আজিজিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে বিএসসি গনিত শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ছাত্রজীবন থেকেই বঙ্গবন্ধু আর্দশে উজ্জীবিত ছিলেন। ২০০১ সালের পরবর্তী সময়ে মিথ্যা হত্যা মামলা, চাঁদাবাজী মামলা, ডিটেনশন মামলার রোষানলে পড়েন। অনেক কস্ট ত্যাগ স্বীকার করেন আওয়ামীলীগের রাজনীতির জন্য।তিনি দীর্ঘ ২৩ বছর একটানা ২নং চরবংশী  ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও রায়পুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মানিত সদস্য পদে অধিষ্ঠিত হন।২০১১ সালে জনগনের বিপুল ভোটে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন এবং ২০১৪ সাল পর্যন্ত স্বীয় পদে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৪ সালে আওয়ামীলীগের দলীয় সমর্থনে রায়পুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে ২০১৮ সাল পর্যন্ত রায়পুর উপজেলা পরিষদের এ চেয়ারম্যান  সুনামের সাথে দায়িত্ব কাল সম্পন্ন করেন। আসছে রায়পুর উপজেলা  আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে জনগনের অকুন্ঠ ভালবাসা সমর্থনে সভাপতি পদে বিজয়ী হবেন বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন। সাবেক রায়পুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রায়পুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে নির্বাচিত হওয়ার জন্য সকলের দোয়া প্রার্থী।  আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ ও শেখ হাসিনা সরকারের হাতকে শক্তিশালী করতে তৃণমূলের দাবির প্রেক্ষিতে আগামী উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সভাপতি প্রার্থী হবেন। তিনি আওয়ামী লীগের সাধারণ কর্মী হিসেবে কাজ করতেই অহংকারবোধ করেন। দলের সভানেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তই তার শেষ সিদ্ধান্ত। নেত্রী যে নির্দেশ দিবেন তিনি মাথা পেতে নেবেন। নেতৃত্বের প্রতি তার কোন লোভ নেই। নেতা হওয়ার জন্য তিনি কখনো রাজনীতি করেননি। নেত্রী যাকেই সভাপতি করবেন তার নেতৃত্বেই দলকে সুসংগঠিত ও রাজপথের আন্দোলন-সংগ্রামে দুর্বার অবস্থান নেবেন। দৈনিক সকালবেলা প্রতিনিধিকে দেয়া এক সাক্ষাতে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান  মাস্টার আলতাফ হোসেন হাওলাদার  এসব কথা বলেন। তৃনমূলের নেতাকর্মীরা বলেন
আলতাফ হোসেন হাওলাদার বিএসসি রায়পুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হলে সংগঠনে গতিশীলতা বৃদ্ধি পাবে। দল সুসংগঠিত হবে, তৃণমূল মূল্যায়িত হবে, আওয়ামী পরিবার যোগ্য অভিভাবক পাবে।