ফরিদপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ শিক্ষার্থীর মৃত্যু

18
0

ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ফরিদপুরের মধুখালীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় তিন শিক্ষার্থীর মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। শনিবার বেলা ১২টার দিকে গরিয়াদহ এলাকায় ও বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ঘোপঘাট এলাকায় এ দুর্ঘটনা দুটি ঘটে।

জানা যায়, ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের ঘোপঘাট নামক স্থানে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে মোটরসাইকেল আরোহী লিমন (১৮) ও সাব্বিরকে (১৭) চাপা দেয় একটি ইটের খোয়া বোঝাই ট্রাক (ঢাকা মেট্রো ড-১৪-১৯৪১)।

ট্রাকচাপায় ঘটনাস্থলেই নিহত হয় ওই দুই কিশোর। নিহত লিমনের বাড়ি ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলার মেছরদিয়া গ্রামে এবং সাব্বিরের বাড়ি রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া গ্রামে। নিহত দুজনই চলতি বছর এসএসসি পাস করেছে।মধুখালী থানার এসআই সাজ্জাদ হোসেন জানান, নিহত দুই শিক্ষার্থীর মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। তিনি জানান, ঘাতক ট্রাকটিকে স্থানীয়রা আটক করেছে।

এদিকে বেলা ১২টার দিকে উপজেলার গড়াই সেতু সংলগ্ন গড়িয়াদহ নামক স্থানে রাস্তা পার হওয়ার সময় যাত্রীবাহী বাসচাপায় স্কুলছাত্র কাদের মোল্লার (১৪) মৃত্যু হয়। নিহত কাদের মোল্লা ডুমাইন ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর সম্মিলনী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্র। সে নিশ্চিন্তপুর গ্রামের ওহিদুল মোল্লার ছেলে।জানা যায়, কাদের কামারখালী বাজার থেকে ঈদের কেনাকাটা শেষে বাইসাইকেল করে বাড়ি ফিরছিল। শনিবার বেলা ১২টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের উপজেলার গরিয়াদহ এলাকায় রাস্তা পার হওয়ার সময় মাগুরাগামী বনফুল নামের যাত্রীবাহী বাস কাদেরকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

মধুখালী উপজেলার ডুমাইন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. খুরশিদ আলম মাসুম দুর্ঘটনার তথ্য জানিয়ে বলেন, স্কুলছাত্র কাদেরের মৃতুতে পরিবারের লোকজন, এলাকাবাসী ও তার সহপাঠীরা ঘাতক বাসচালকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে।কানাইপুর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই ওমর ফারুক মিয়া জানান, মরদেহটি উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে। পরবর্তী কার্যক্রম সম্পন্ন করে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। ঘাতক যাত্রীবাহী বাস ও চালককে আটকের চেষ্টা চলছে।