ভাবিকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে তুলকালাম কাণ্ড ঘটিয়েছে দেবর

2
0

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় প্রবাসী বড় ভাইয়ের স্ত্রীকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে তুলকালাম কাণ্ড ঘটিয়েছে দেবর। সেই সঙ্গে ভাবিকে মারধর করে নগদ ২ লাখ টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুটপাট করা হয়েছে।

এ ঘটনায় প্রবাসীর স্ত্রী ইয়াসমিন বেগম বাদী হয়ে দেবর ও ননদের স্বামীসহ ছয়জনের নাম উল্লেখ করে বন্দর থানায় মামলা করেছেন।

বুধবার রাতে উপজেলার মিনারবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর গৃহবধূর ভাসুর দিদার হোসেন ও ননদের স্বামী মীর হোসেনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মামলায় গৃহবধূ উল্লেখ করেন, তার স্বামী মোশারফ হোসেন প্রবাসে থাকার সুযোগে তারই ছোট ভাই দেলোয়ার হোসেন ও ননদের স্বামী মীর হোসেন বিভিন্ন সময় তাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল।

২৪ সেপ্টেম্বর রাত ২টার দিকে ননদের স্বামী মীর হোসেন গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় মীর হোসেন। একপর্যায়ে গৃহবধূ চিৎকার দিলে পালিয়ে যায় মীর।

প্রবাসীর স্ত্রী ইয়াসমিন বেগম বলেন, ২৫ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে আমার ঘরে ঢুকে দেবর দেলোয়ার হোসেন। এ সময় ঘুমন্ত অবস্থায় ধর্ষণের চেষ্টা চালায় দেলোয়ার। পরে চিৎকার দিলে দৌড়ে পালিয়ে যায় দেলোয়ার। সকালে দেবরের এ ঘটনা আমার শাশুড়িকে জানাই এবং বিচার দাবি করি। কিন্তু দেবরের বিচার না করে উল্টো আমার শাশুড়ি সুরবানু, ননদ রহিমা বেগম ও হালিমা বেগম, ভাসুর মোতালেব, দিদার হোসেন ও ননদের স্বামী মনির হোসেন আমাকে মারধর করে। সেই সঙ্গে আমার নগদ ২ লাখ ২৫ হাজার টাকা ও দেড় ভরি স্বর্ণালঙ্কার লুটপাট করে নিয়ে যায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বন্দর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিন মন্ডল বলেন, এ ঘটনায় ওই গৃহবধূ মামলা করেছেন। রাতেই মামলার এজাহারভুক্ত দুইজন আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেফতারকৃতদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here