যশোরে লাঠির আঘাতে আওয়ামী লীগ নেতাকে হত্যা

1

জেমস আব্দুর রহিম রানা, যশোর :
যশোরে লাঠির আঘাতে আওয়ামী লীগের নেতা নিতাই পালের (৫০) মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (১৮ এপ্রিল) সকালে যশোর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিতাইপাল যশোর সদর উপজেলার কচুয়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক এবং কচুয়ার রায়মানিক গ্রামের মৃত হরিপদ পালের ছেলে। মারপিটে নিহত নিতাই পালের মেয়ে গুরুত্বর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পুলিশ অভিযুক্তদের আটকের অভিযান শুরু করেছে।
নিহতের ভাই গৌরাঙ্গ পাল জানান, শুক্রবার বিকাল ৪টায় প্রতিবেশি রতন পালের ছেলে সুখদেব পাল তাদের লেবু গাছ কেটে ফেলে। এসময় গৌরাঙ্গ পাল তাদের কাছে লেবু গাছ কাটার কারণ জানতে চাইলে সুখদেব পাল, রতন পাল, প্রদীপ পাল, জয়দেব পাল তাদের ওপর লাঠিসোঠা ও শাবল নিয়ে হামলা চালায়। নিতাই পালের মেয়ে চন্দনা পাল (১৪) ঠেকাতে আসে। এসময় তারা শাবল দিয়ে নিতাই পালের মাথায় এবং চন্দনা পালের পিঠে ও মাথায় আঘাত করে। তারা দুইজনে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে এবং স্থানীয়রা এগিয়ে আসে। এসময় হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৬টায় স্থানীয়রা নিতাই পাল ও চন্দনা পালকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়। শনিবার সকাল সাড়ে ১১টায় হাসপাতালের ইন্টার্ণ ডাক্তার রিফাত সিকদার নিতাই পালকে মৃত ঘোষণা করেন।
যশোর কোতয়ালি মডেল থানার ওসি মনিরুজ্জামান ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিতাই পালের মৃত্যু হয়েছে বলে শুনেছেন। থানায় কেউ কোন অভিযোগ দেয়নি বলে তিনি জানান। তবে পুলিশ গনেশ পাল ও সঞ্জয় পাল নামে দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করার থানায় নিয়ে গেছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।