ছাত্রলীগের কর্মীরা হেল্প লাইনে ফোন করলে পাঠিয়ে দিবে খাবার

54

গাজী আসাদুজ্জামান রাকিবঃ

করোনা ভাইরাসের এই দুর্দিনে অসহায়, কর্মহীন মানুষের পাশে আছে বাকেরগঞ্জের ছাত্রলীগের কর্মীরা হেল্পলাইন নাম্বারে ফোন দিলে বাড়ি পৌঁছে দেয়া হবে খাদ্যসামগ্রী।

সারাবিশ্ব আজ থমকে গেছে ভয়ংকার মহামারি করোনা ভাইরাসের সারাবিশ্বের মতো কিন্তু বাংলাদেশ ও আস্তে আস্তে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে ব্যাপকভাবে অসংখ্য মানুষ আর এই কারনে মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সরকার ২৫ মার্চ লকডাউন ঘোষনা করে। ফলে অসংখ্য মানুষ কমর্হীন হয়ে পড়ে বিশেষ করে যারা দিনমজুর, তারা বিপাকে পড়ে যায় সেই জন্য আমাদের দেশনেত্রী আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারি ভাবে প্রত্যেক জেলা, উপজেলা,ইউনিয়নে পর্যায়ে পৌঁছে দিচ্ছে খাদ্যসামগ্রী, এছাড়া ব্যাক্তিগত উদ্যোগে বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা ,গণমাধ্যমকর্মীরা,ছাত্রলীগকর্মীরা, স্থানীয় ধন্যাঢ্য ব্যাক্তি ও বিভিন্ন পেশাজীবী মানুষ এই অসহায়, দিনমজুর, ও কর্মহীন মাঝে সাহায্য, সহযোগীতা করে আসছে।

তারই ধারাবাহিকতায় এই দুর্দিনে করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে দিন রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে বাকেরগঞ্জ উপজেলার ছাত্রলীগের কর্মীরা। ছাত্রলীগের কর্মীরা এপর্যন্ত বিভিন্ন হাট-বাজারের জিবাণুনাশক স্প্রেরে ছিটান,সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে কাজ করছে অসহায় কর্মহীন মানুষের মাঝে খাবার বিতারন করে আসছে।

বাকেরগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো:সাইফুল ইসলাম ডাকুয়া এর নেতৃত্বে লকডাউনে শুরু হতে কাজ করছেন পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আহম্মেদ কাওসার, উপজেলা ছাত্রলীগের প্রচার সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম রিজু,কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মো: শেখ মহিদুল ইসলাম মিরাজ, সাধারন সম্পাদক মুশফিকুর রহমান দোলন, সাংগাঠনিক সম্পাদক মো: আসাদুল ইসলাম রাজু প্রমূখ। তারা যেকোনো দুর্যোগের সময় অসহায় মানুষের পাশে থাকবে এবং তাদের সাধ্যমত অসহায়দের সহযোগীতার চেষ্টার করার কথা বলেন। এমতাবস্থায় প্রায় তারা অনেক পরিবারের মাঝে খাদ্য পৌঁছে দিয়েছেন এবং যাদের খাদ্যের সংকট দেখা দিবে তারা হেল্পলাইন নাম্বরে ফোন দিলে বাড়ি গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিবেন বলে জানান।

ছাত্রলীগের কর্মীরা সব সময় জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে কাজ করবে এবং অসহায় মানুষের পাশে থাকবে এমনটা প্রকাশ করেন।