মণিরামপুরের সেই স্বাস্থ্যকর্মী ও তার শ্যালক করোনা পজিটিভ

0

জেমস আব্দুর রহিম রানা, যশোর :
যশোরের মণিরামপুরের সেই স্বাস্থ্যকর্মী পুনরায় করোনা ভাইরাসে অাক্রান্ত হয়েছে। একই সাথে তার শ্যালকও করোনা পজিটিভ।  ওই স্বাস্থ্যকর্মীকে কেশবপুর উপজেলার ইমাননগর গ্রামে তার শ্বশুরালয়ে রেখেই এখনও চিকিৎসা করানো হচ্ছে। অার তার শ্যালককে বৃহস্পতিবার(২৩এপ্রিল)মণিরামপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্য বিভাগ সুত্রে জানা যায়, মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ওই স্বাস্থ্যকর্মীর  গ্রামের বাড়ি উপজেলার মশ্মিমনগর ইউনিয়নের হাজরাকাটি বেলতলা গ্রামে। মণিরামপুর হাসপাতালের পাশে মোহনপুরে ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন তিনি। বর্তমানে তিনি মণিরামপুররের সীমান্তবর্তী মুজগুন্নী  গ্রামের পাশের গ্রাম কেশবপুর উপজেলার ইমাননগরে  শ্বশুরালয়ে থেকে চিকিৎসারত অাছেন। গত ১০ এপ্রিল  ওই স্বাস্থ্যকর্মীর করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়। এর অাগে সপ্তাহকাল যাবত করোনা পজিটিভ ওই স্বাস্থ্যকর্মী জ্বর,সর্দি ও কাশিতে ভুগছিলেন। গত ৮ এপ্রিল তার নমুনা সংগ্রহ করে খুলনায় পাঠান উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক ডা: শুভ্রা রানী দেবনাথ। ওই স্বাস্থ্যকর্মীর করোনা পজিটিভ শনাক্তের পর  যশোর সিভিল সার্জনসহ স্বাস্থ্যবিভাগের উধ্বর্তন কর্তৃপক্ষ সরেজমিন এসে ওই স্বাস্থ্যকর্মীর শ্বশুরালয়ে রেখেই চিকিৎসার সিদ্ধান্ত হয়। জানা যায়, দ্বিতীয় নমুনা পরীক্ষায়ও তার পজিটিভ রিপোর্ট অাসে। এর পর ধীরে ধীরে সে অনেকটা সুস্থ্য হয়ে ওঠে। এই অবস্থায় নমুনা পরীক্ষান্তে তার করোনা নেগেটিভ রেলাল্ট অাসে।
অতি সম্প্রতি তার অাবারও করোনার সিম্টম দেখা দেয়। সেই সাথে তার শ্যালকেরও করোনা উপসর্গ দেখা দিলে  মণিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স তাদের নমুনা সংগ্রহ করে শনাক্তের জন্য পাঠান। বৃহস্পতিবার তাদের রিপোর্টে দু’জনেরই করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক ডা: শুভ্রা রানী দেবনাথ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।