মহম্মদপুরের ইউএনওর ব্যতিক্রমি উদ্যোগ

1

সৈয়দ রহমত আলী, মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি।
সারা দেশে যখন গরিবের চাল কিছু অসাধু চক্র দ্বারা চুরির খবর পেপার পত্রিকায় ছাপা হচ্ছে, ঠিক এমন সময় এক ব্যতিক্রমি পদক্ষেপ গ্রহণ করেন মাগুরার মহম্মদপুরের ইউ এন ও মোঃ মিজানুর রহমান ।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাকে সফলভাবে বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে “মানবিক সহায়তা কার্ড” তৈরির জন্য প্রায় ৫১ হাজার পরিবারের মধ্য থেকে প্রকৃত সুবিধাভোগী যাচাই বাচাই করার লক্ষ্যে এবং সুলভ মূল্যে খাদ্য বিতরণ কর্মসূচির সুবিধাভোগীদের প্রকৃত আর্থিক  অবস্থার তথ্য যাচাইয়ের জন্য তিনি এ ব্যতিক্রমি পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন।
এ ব্যবস্থায় তিনি মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার ১শ ৩৬ টি গ্রামে ৭শ জন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক,  ৩শ ৭০ জন হাইস্কুল ও মাদ্রাসার শিক্ষক, ৭৫ জন কলেজ শিক্ষক,  ইউনিয়ন এবং উপজেলা পর্যায়ে ২শ জন বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দকে  তথ্য যাচাই বাছাইয়ের দায়িত্ব প্রদান করেছেন ।

এ সকল কর্মকর্তাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সঠিক  তথ্য সংগ্রহ করে দ্রুত ইউ এন ও অফিসে জমা দেয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন।  বুধবার সকাল ৯টায় তিনি প্রতিষ্ঠান প্রধানদের ডেকে তালিকা বুঝিয়ে দেন এবং তাদের সহকারীগনদের একদিনের মধ্যে তথ্য সংগ্রহ করে জমা দেয়ার জন্য বলেন।
এলাকাবাসীকে তিনি নিজ নিজ বাড়ীতে অবস্থান করে যাচাইকারীকে প্রকৃত তথ্য দিয়ে সহায়তা করার জন্য অনুরোধ করেন।
স্থানীয় সচেতন মহল এ উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন এবার প্রকৃত দরিদ্র লোকেরা সরকারি এ সুবিধা পাবে। এখানে স্বজনপ্রীতির সম্ভাবনা খুবই কম। তারা আরও বলেন দেশের সকল উপজেলায় এমন পদক্ষেপ নিলে দেশের কাউকে না খেয়ে থাকতে হবে না।