যুবলীগ নেতা পলাশ গাজীর নামে থানায় অভিযোগ চাঁদা উত্তোলনের দায়

21

বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ বাকেরগঞ্জে বসত ভিটায় বালি ফেলানো ও বাড়ি নির্মাণ কে কেন্দ্র করে দু লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করেছে ক্ষমতাশীন দলের কতিপয় সন্ত্রাসীরা। এদের বিরুদ্ধে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ভরপাশা ইউনিয়নের কৃঞ্চকাঠী গ্রামের মো. আলম গাজীর পুত্র নামধরী পৌর যুবলীগের নেতা পলাশ গাজী ওরফে চাঁদাবাজ পলাশ, মো.আলম হাওলাদারের পুত্র মামুন হাওলাদার

রাধিকা হালদারের পুত্র ক্ষমতাশীন দলের নেতা পরিতোষ হালদার একই এলাকার শাহ জাহান হাওলাদার ও সাখাওয়াত হোসেনের কাছে গত ৮ ই মে ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। এ সময় তারা লেবারদের বিভিন্ন ভাবে হুমকী ধামকী দিয়ে বলেন, চাঁদা না দিলে বালু ফেলতে পারবেন না।

পলাশ, মামুন ও পরিতোষকে চাঁদা না দেওয়ায় সাখাওয়াত হোসেনের লেবার কুদ্দুস হাওলাদার কে মারধর করে। পরে কুদ্দুস হাওলাদার কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। সাধারণ চিকিৎসা দিয়ে কুদ্দুস কে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়।

শুধু সাখাওয়াত হোসেন ও শাজাহান হাওলাদার নয় এদের মত আরো অনেকেনিরিহ মানুষ পলাশ, মামুম ও পরিতোষ এর কাছে জিম্মি। অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকার সাধারণ মানুষ। এদের বিরুদ্ধে ভয়ে কেহ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছে না।

নাম না প্রকাশে একাধিক ব্যক্তি জানান, পলাশ, মামুন ও পরিতোষের ছত্র-ছায়ায় একটি সন্ত্রাসী বাহিন গঠন করা হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে এদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি,হামলা, মামলার একাধিক অভিযোগ রয়েছে। এরা সাধারণ মানুষকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে মোটা অংকের চাঁদা অাদায় করে থাকেন।

তথ্য সুত্রে,বাকেরগঞ্জ পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোঃ কবির হাওলাদা ভিকাখালির চর ইজারাদার ২০১৮ সালের চর ইজারাদার থাকাকালীন সময়ে ভরপাশা সমিতিঘর নামক স্থানে বসত ভিটায় বালু ফেলাতে একটি ড্রেজার নিয়ে অাসলেও স্থানীয় লোকজনকে বালু দিতে পারেনি সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজ যুবলীগ নেতা পলাশ গাজীকে চাদার টাকা না দেয়ায়।

এ বিষয়ে তখন বাকেরগঞ্জ থানায় একটি চাঁদাবাজির অভিযোগ দিয়েছিলেন চর ইজারাদার মোঃ কবির হাওলাদার। ক্ষমতার দাপটে তখনও চাঁদাবাজ পলাশ গাজীকে অাইনের অাওয়াতায় অানা সম্ভব হয়নি।

পলাশ গাজী নিজেকে সাংবাদিক আবার ভরপাশা ইউনিয়নে ছাত্রলীগ আবার কখনো যুবলীগের বড় নেতার পরিচয় দিয়ে এলাকাতে বিভিন্ন কু-কর্ম করে বেড়াচ্ছে মামুন ও পরিতোষ কে নিয়ে। এ ঘটনায় শাহ জাহান হাওলাদার বাদী হয়ে গত ৯ মে বাকেরগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

এলাকাবসী ও ভুক্তভোগী পরিবার চাঁদবাজ পলাশ গাজীর অত্যাচারে অতিষ্ট পলাশ,মামুন ও পরিতোষের বিরুদ্ধে সুষ্টু তদন্তের মাধ্যমে প্রাশাসনের সকল উধ্বর্তন কর্মকর্তাদের কাছে দাবী জানিয়েছেন।

Sponsored