জনসম্পৃক্ততা বাড়াতে হবে এডিস মশা লার্ভা নিধনে

0

এডিস মশা নিধনে সিটি করপোরেশনের অভিযান লোক দেখানো বলে মন্তব্য করেছেন নগরবিদরা। তারা বলছেন, কয়েকদিনের নামমাত্র তৎপরতায় ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণ হবে না। তাদের পরামর্শ পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা ও লার্ভা নিধনে জনসম্পৃক্ততা বাড়াতে হবে।

সিটি করপোরেশনের লার্ভাবিরোধী অভিযান লোক দেখানো ছাড়া আর কিছুই নয়, বলছেন নগর পরিকল্পনাবিদ ইকবাল হাবিব। তারা বলছেন, ডেঙ্গু থেকে রক্ষা পেতে বাড়াতে হবে জনসচেতনতা।

২০১৯ সালে সব রেকর্ড ভেঙে ছিলো ডেঙ্গু। আক্রান্ত হয়েছিল এক লাখের বেশি মানুষ এর মধ্যে শুধু ঢাকাতেই অসুস্থ হয়েছিল ২০ হাজারের মতো। সে সময় মশা নিয়ন্ত্রণে দুই সিটি করপোরেশনের ওপর ক্ষুব্ধ ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও।

গতবারের ব্যর্থতা ঢাকতে এবার আঁটসাঁট বেধে মাঠে নেমেছেন নতুন দুই মেয়র। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। এরই মধ্যে এডিসের লার্ভা নিধন শুরু করেছে সিটি করপোরেশন। তবে তাদের কর্মযজ্ঞ নিয়ে আবারো সমালোচনা তৈরি হয়েছে।

কীটতত্ত্ববিদ কবিরুল বাশার বলেন, তারা যেভাবে কাজ করছে সেভাবে এডিস নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়।

এবছর মশা নিধনে বরাদ্দ দ্বিগুণ করেছে ঢাকা সিটি করপোরেশন। চলতি বছর উত্তর সিটিতে বরাদ্দ ৪৯ কোটি ৩০ লাখ টাকা আর দক্ষিণে ৪৩ কোটি ৩০ লাখ টাকা।